BD Business

Bangladeshi Business News

খাদ্যের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানাবে গুগল

বণিক বার্তা ডেস্ক
শীর্ষ সার্চ ইঞ্জিন গুগলে এবার যোগ হতে যাচ্ছে খাদ্যের পুষ্টিগুণ-সম্পর্কিত তথ্যাদি। প্রায় সব ধরনের তথ্যের ভাণ্ডার গুগলে খাদ্যের পুষ্টিগুণ-সম্পর্কিত এ সংযুক্তির ফলে সংশ্লিষ্টরা ছাড়াও সাধারণ গ্রাহকরাও উপকৃত হবেন বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা। খবর হেলথের।
গুগলের এ সংযুক্তির আগ পর্যন্ত খাদ্যের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানার কোনো নির্দিষ্ট জায়গা ছিল না। ফলে এ বিষয়ে কোনো তথ্য বা খবর জানতে হলে গ্রাহককে বেশ বেগ পেতে হতো। তবে গুগলের এ সংযুক্তি গ্রাহকদের সমস্যার মাত্রা অনেক কমিয়ে দেবে বলে আশা করছেন বিশ্লেষকরা। এর ফলে কোনো খাদ্যের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে গুগলে খোঁজ করা হলে এ-সম্পর্কিত সব তথ্য চলে আসবে গ্রাহকের হাতের নাগালে। এর সাহায্যে একজন গ্রাহক যেকোনো খাদ্যে বিদ্যমান শর্করা, আমিষ, স্নেহজাতীয় খাদ্যমানের সঙ্গে সঙ্গে অন্যান্য খাদ্যমান সম্পর্কেও জানতে পারবেন।
গুগল সার্চ ইঞ্জিনে খাদ্যের পুষ্টিগুণ-সম্পর্কিত সংযুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছেন এ কাজে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। কোনো খাদ্যের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানতে এখন একটি সহজ প্রশ্নই (যেমন ‘কলায় কী পরিমাণ ক্যালরি আছে,’ কিংবা ‘কাপকেকে চিনির পরিমাণ কত) যথেষ্ট বলে জানানো হয় গুগলের পক্ষ থেকে। প্রশ্নগুলোর শীর্ষ উত্তরগুলোয় একটি তালিকার মাধ্যমে এ সম্পর্কে জানিয়ে দেয়া হবে। এ সম্পর্কে আরো বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে এর পরবর্তী ফলাফলগুলোয়। এতে আরো যুক্ত থাকবে এ অনুসন্ধান সংশ্লিষ্ট আরো নির্দিষ্ট সাইটের লিংক। ফলে বিস্তারিত ও প্রয়োজনীয় সব তথ্যাদি থাকবে গ্রাহকের হাতের নাগালে।
খাদ্যসচেতন ব্যক্তিদের জন্য এর স্বাদের তুলনায় পুষ্টিমানের গুরুত্ব সবসময়ই বেশি। এ কারণে গুগলের এই সংযুক্তি তাদের জন্য আশীর্বাদ হয়ে আসবে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা। খাদ্যের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানতে একজন             গ্রাহক তার ডেস্কটপ কম্পিউটারের পাশাপাশি ব্যবহার করতে পারবেন আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমচালিত সেলফোনগুলোকেও। এছাড়া নতুন সংযুক্ত ভয়েস কন্ট্রোল সিস্টেমেও খাদ্যের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে খোঁজ নেয়া যাবে গুগলে। একজন গ্রাহক তার দৈনন্দিন খাদ্যাভ্যাসের মোট পুষ্টিগুণ খুব সহজেই এর মাধ্যমে বের করতে পারবেন বলে উল্লেখ করেন বিশ্লেষকরা। ফলে মানুষ স্বাস্থ্য সম্পর্কে আরো সচেতন হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তারা।
অনেকেই খাদ্যমান-সম্পর্কিত গুগলের প্রয়াসকে স্বাগত জানালেও এর সীমাবদ্ধতা সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছে। ঠিক কতটি পর্যন্ত খাদ্যের পুষ্টিগুণকে গুগল তালিকাবদ্ধ করতে পারবে, সে সম্পর্কেও সংশয় প্রকাশ করেছে অনেকে। তবে এ সম্পর্কে গুগল যথেষ্টই সচেতন বলে জানানো হয় কোম্পানিটির পক্ষ থেকে। এ পর্যন্ত এক হাজার ধরনের খাদ্যের পুষ্টিমান তালিকাবদ্ধ করতে সক্ষম হয়েছে বলে জানানো হয় গুগলের পক্ষ থেকে। একই সঙ্গে প্রতিদিন আরো নতুন নতুন খাদ্যের পুষ্টিমানকে তালিকাবদ্ধ করতেও তারা কাজ করে যাচ্ছে বলেও জানায় কোম্পানিটি। অচিরেই আরো এক হাজার খাদ্যের পুষ্টিমান গুগল সার্চে সংযুক্ত হতে যাচ্ছে বলেও জানানো হয় কোম্পানিটির পক্ষ থেকে।
খাদ্যের পুষ্টিমানের যথার্থতা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে কোম্পানিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, পুষ্টিমান-সম্পর্কিত সব তথ্য নেয়া হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি বিভাগ থেকে। ফলে এ পুষ্টিমান যথেষ্টই সঠিক। তবে কোনো নির্দিষ্ট খাবারের পুষ্টিগুণ জানা গেলেও একই খাবারের কোনো নির্দিষ্ট ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রে এটি প্রযোজ্য হবে না বলে জানায় গুগল।
 ‘মাই ফিটনেস প্যাল’ বা ‘সেলফ প্রোভাইড’-এর মতো খাদ্যের পুষ্টিগুণ-সম্পর্কিত সার্চ ইঞ্জিনগুলোর কাছাকাছি যেতে গুগলকে এখনো বহু পথ পাড়ি দিতে হবে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা। এ সাইটগুলোর অসংখ্য খাদ্যের তুলনায় গুগলে দেখানো মাত্র এক হাজার খাদ্যের পুষ্টিমান অনেক কম বলেও মনে করেন বিশ্লেষকরা। তবে সর্বাধিক ব্যবহূত সার্চ ইঞ্জিনে খাদ্যের পুষ্টিমানের এ সংযুক্তির ফলে গ্রাহকরা তাদের খাদ্য বাছাই ও এর পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানতে আরো আগ্রহী হবে বলেও মনে করেন বিশ্লেষকরা।
Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: